Header Ads

অ্যামাজন অভিযানে শঙ্কর!




পরিচালনা: কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়
অভিনয়:দেব,লাবণী হালদার,শ্বেতলানা গুলকাভা, ডেভিড জেমস্
প্রযোজনা:শ্রীভেঙ্কটেশ ফিল্মস্


দুর্ধর্ষ না অতিলৌকিক?ঠিক কোন অভিধায় ভূষিত করা যায় এই সিনেমাটিকে তাই নিয়ে এই প্রতিবেদক মহা
সংশয়ে পড়েছে। ছবিটি 'ধামাকেদার' হয়েছে, ঠিকএই বিশেষণ ই ব্যবহার করতে ইচ্ছা হল সিনেমাটি দেখে।
চাঁদের পাহাড় সিনেমার সিক্যুয়েল এই ছবিটি, পরিচালক এর মাধ্যমে বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে শ্রদ্ধার্ঘ্য
জানিয়েছেন তার নিজস্ব বুননে।


সিনেমার প্রথম দৃশ্যটি একদম 'জলে কুমির ডাঙায় বাঘ' এর মতো।শঙ্কর (দেব)কে তাড়া করেছে কিছু কালো চিতা,
শঙ্কর ঝাঁপ দিল পাহাড় থেকে সমুদ্রে আর পড়ল কুমিরের সামনে,পরে দেখা যায় নায়ক বই পড়তে পড়তে
ঘুমিয়ে পড়েছিল অর্থাৎ স্বপ্ন দেখছিল শঙ্কর।এরপর অ্যানা ফ্লোরিয়ান নামে এক বিদেশিনী কেওটিয়া গ্রামে ফিরে
এসে শঙ্করকে তার বাবা মার্কো ফ্লোরিয়ান আর তার অধরা এল ডোরাডো অভিযানের কথা বলে এবং বাবাকে
রাজি করিয়ে শঙ্করকে সেই অভিযানে যেতে অনুরোধ করে। শঙ্কর এরপর যায় অ্যামাজন অভিযানে,যা দুর্ধর্ষ
এবং রোমাঞ্চকর।বাঘ থেকে অ্যানাকোন্ডা সেই যাত্রাপথে সব আছে।


সিনেমাটির একটি জিনিস বেশ চমকপ্রদ,তা হল পুরো যাত্রাপথের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ যথাযথ ভয়েস ওভারে,
যা শুধু বাচ্চাদের পক্ষে ভালো না,বড়রাও অনেক জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন এর থেকে।


দেব অভিনয় ভালোই করেছেন,নবাগতা শ্বেতলানা ও ডেভিড জেমস্ যথাক্রমে অ্যানা ও মার্কোর চরিত্রে যথাযথ।
কোনো পরিচিত মুখ ছাড়াও বাংলায় এত বড় বাজেটের সিনেমা তৈরি করা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য।


SVF এর ১০০ তম প্রযোজনাটির সিনেম্যাটোগ্রাফি আর আবহ সঙ্গীত অসাধারণ,এই ছবির শ্রেষ্ঠ
প্রাপ্তি।সৌমিক হালদার ও দেবজ্যোতি মিশ্র অসাধারণ কাজ করেছেন,যা কোনো হলিউড সিনেমার থেকে কম নয়।

কস্টিউম ও সেট্ ডিজাইন ও সময়োপযোগী।

গল্পে কিছু ফাঁকফোকর অবশ্যই আছে, তবুও ২৫ কোটি বাজেট দিয়ে বাংলায় অ্যাডভেঞ্চার ফিল্ম প্রথমবার তৈরি
হল।তাই এই ছুটির মরশুমে একবার অ্যামাজন অভিযান করেই আসুন না!